সংস্করণ: ২.০১

স্বত্ত্ব ২০১৪ - ২০১৭ কালার টকিঙ লিমিটেড

সুখী জীবন বেশি ঘুমান, দাম্পত্য জীবনে সুখে থাকুন

বিবাহিত জীবনের সুখপাখিটা উড়ে গেছে? হাজার চেষ্টা করেও সুখের দেখা পাচ্ছেন না আপনার গৃহে? চিন্তার কিছু নেই। দাম্পত্য জীবনে অশান্তি ও বিবাহবিচ্ছেদের সুন্দর সমাধান বের করেছেন একদল গবেষক।

বিবাহিত জীবনে কলহ, অশান্তি লেগেই আছে? আপনার দাম্পত্য জীবনে সুখপাখিটা উড়ে গেছে? হাজার চেষ্টা করেও সুখের দেখা পাচ্ছেন না আপনার গৃহে? চিন্তার কিছু নেই। সুখের জন্য আপনাকে বেশি কিছু করতে হবে না।

বিবাহিত জীবনে অশান্তি ও বিবাহবিচ্ছেদের সুন্দর সমাধান বের করেছেন একদল গবেষক।

উপহার কিংবা রোম্যান্টিক নৈশভোজ নয়। বিবাহিত জীবনে সুখের চাবিকাঠি লুকিয়ে আছে পর্যাপ্ত ঘুমের মধ্যে।  দাবি ফ্লোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের মনস্তত্ত্বের গবেষকদের।

তাঁরা বলছেন, সঙ্গীর মেজাজের সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলার মানসিকতা নিয়ন্ত্রণ করে আমাদের মস্তিষ্কের সামনের অংশ। পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুম ওই অংশটিকে তরতাজা করে তুলতে সাহায্য করে। ফলে ঝগড়া এড়িয়ে চলা যায়।

৬ হাজার ৮০০ দম্পতির মধ্যে সমীক্ষা চালিয়ে এই সিদ্ধান্তে এসেছেন গবেষকরা। তাঁরা বলছেন, পেশা এবং অন্যান্য সামাজিক অভ্যাসের কারণে সারা বিশ্বে মানুষের গড় ঘুমের সময় গত ১০ বছরে ২ ঘণ্টা কমে গেছে। সেই কারণেই নাকি বিবাহবিচ্ছেদের ঘটনা গত ১০ বছরে বেড়েছে ৮ শতাংশ।

কানসাসের এক দম্পতির ‘‌কেস হিস্ট্রি’‌-‌র উদাহরণ দিয়েছেন গবেষকরা।

দৈনন্দিন অশান্তির কারণে বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ওই দম্পতি। মনোবিদরা তাঁদের দিনে ৮ থেকে ৯ ঘণ্টা ঘুমের পরামর্শ দেন। তার সঙ্গে একটি ডায়রিতে সম্পর্কের কতটা উন্নতি হচ্ছে সেটা রোজ লেখার পরামর্শ দেন।

দু’‌মাস পরেই বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন ওই দম্পতি।‌

তাই, আজ থেকে পর্যাপ্ত পরিমাণ ঘুমান, দাম্পত্য জীবন সুখের করে তুলুন।


এখানে প্রকাশিত প্রতিটি লেখার স্বত্ত্ব ও দায় লেখক কর্তৃক সংরক্ষিত। আমাদের সম্পাদনা পরিষদ প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে এখানে যেন নির্ভুল, মৌলিক এবং গ্রহণযোগ্য বিষয়াদি প্রকাশিত হয়। তারপরও সার্বিক চর্চার উন্নয়নে আপনাদের সহযোগীতা একান্ত কাম্য। যদি কোনো নকল লেখা দেখে থাকেন অথবা কোনো বিষয় আপনার কাছে অগ্রহণযোগ্য মনে হয়ে থাকে, অনুগ্রহ করে আমাদের কাছে বিস্তারিত লিখুন।